মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৪:২৪ পূর্বাহ্ন

হার্ভার্ডে ভর্তির জন্য ১৫ লাখ ডলার ঘুষ

  • প্রকাশের সময়ঃ শনিবার, ২১ নভেম্বর, ২০২০
  • ২১ জন পড়েছেন
শেয়ার করুনঃ

বিশ্ব বিখ্যাত যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য মোটা অঙ্কের অর্থ কেলেঙ্কারির ঘটনা ঘটেছে।

নিজের দুই ছেলেকে হার্ভার্ডের ফেন্সিং টিমে ভর্তি করানোর জন্য বিশ্ববিদ্যালয়টির সাবেক ফেন্সিং কোচ ৬৭ বছর বয়সী পিটার ব্রান্ডকে ১৫ লাখ ডলার ঘুষ দেয়ার অভিযোগ উঠেছে মেরিল্যান্ডের ব্যবসায়ী জি জ্যাক জাহোর (৬১) বিরুদ্ধে।

১৯৯৯ সাল থেকে গত বছর পর্যন্ত পিটার হার্ভার্ডের ফেন্সিং কোচ ছিলেন। তার বিলাসবহুল বাড়ি বিক্রি সংক্রান্ত খবর প্রকাশের পর গত বছর হার্ভার্ড কর্তৃপক্ষ পিটারকে বরখাস্ত করে। ঘুষের ঘটনা প্রকাশ হওয়ার পর সোমবার পিটার ও জাহোকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এবারই প্রথম নয়, গত বছরও হার্ভার্ডে ভর্তি কেলেঙ্কারির খবর এসেছিল।

ওই সময় দেশজুড়ে নামি কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে জালিয়াতি করে ভর্তি করানোর জন্য হার্ভার্ডের ৭ জন অ্যালামনাই অভিযুক্ত হন। নিউইয়র্ক টাইমস, বোস্টন গ্লোব। জাহো হচ্ছেন মেরিল্যান্ডের একটি টেলিকমিউনিকেশন্স কোম্পানির প্রধান নির্বাহী। তিনি ২০১৩ সালে পিটার ব্রান্ডকে ১০ লাখ ডলার দেন।

ব্রান্ডের পরিচালিত একটি ফেন্সিং চ্যারিটি সংস্থায় ওই অর্থ দান করার পর ২০১৩ সালেই জাহোর এক ছেলেকে ভর্তি করা হয় হার্ভার্ডে। জাহোর দ্বিতীয় ছেলে হার্ভার্ডে ভর্তি হয় ২০১৭ সালে।

বোস্টনের মার্কিন অ্যাটর্নি অফিস জানিয়েছে, ব্রান্ডকে তার তার স্বার্থসংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানকে জাহো মোট ১৫ লাখ ডলার দিয়েছেন নিজের ছেলেদের ভর্তির করানোর জন্য।

ব্রান্ডের জন্য গাড়ি, তার সন্তানের কলেজের ফি, ম্যাসাচুসেটসে তার বাড়ির মর্টগেজের জন্যও অর্থ খরচ করেছেন হার্ভার্ডে নিজের দুই সন্তানকে করানো অভিভাবক জাহো। তার পর বাজারদরের বেশি দামে ওই বাড়ি পিটার ব্রান্ডকে কিনে দেন তিনি। এসব বিষয়ে বোস্টন গ্লোব খবর প্রকাশ করার পর হার্ভার্ড কর্তৃপক্ষ গত বছর পিটারকে বহিষ্কার করে।

মার্কিন অ্যাটর্নি অ্যান্ড্রউ ই. লেনিং বলেন, ‘এই মামলা ও গ্রেফতারের ঘটনা আমাদের দীর্ঘ প্রচেষ্টার অংশ। কলেজে ভর্তিতে অনিয়ম-দুর্নীতির উদ্ঘাটন ও তা বন্ধে দীর্ঘদিন ধরে এই প্রচেষ্টা চালানো হয়। প্রতি বছর লাখো টিনেজার কলেজে ভর্তির জন্য হুমড়ি খেয়ে পড়ে।

মন্তব্য দিন ...

শেয়ার করুনঃ
মিস করলে পড়ে নিন ...