সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ০১:৪১ পূর্বাহ্ন

প্রবৃদ্ধিতে ভারতকে পিছনে ফেলতে চলেছে বাংলাদেশ

  • প্রকাশের সময়ঃ শুক্রবার, ১৬ অক্টোবর, ২০২০
  • ১৬ জন পড়েছেন
শেয়ার করুনঃ

নিউজ ডেস্ক:

আইএমফের রিপোর্ট প্রকাশ্যর পর পরই মোদি সরকারকে দুষলেন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী। ট্যুইটারে তিনি লিখেছেন, “বিজেপির ছয় বছরের বিদ্বেষপূর্ণ সংস্কৃতি ও জাতীয়তাবাদের এটাই ফল। ভারতকে পিছনে ফেলতে চলেছে বাংলাদেশ।” অর্থনীতি নিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ শানিয়েছে পশ্চিমবঙ্গের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসও। ট্যুইটারে তাঁরা লিখেছেন, নরেন্দ্র মোদির ভুল সিদ্ধান্তের জন্য ভারতের অর্থনীতি আজ তলানিতে।

কোলকাতার বাংলা দৈনিক বর্তমান পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, করোনার ধাক্কায় ক্রমশ দূরে সরছে “আচ্ছে দিন”। অর্থনীতি আগেই টলমল। এবার আরও খারাপ খবর শোনাল আইএমএফ। চলতি অর্থবর্ষে মাথাপিছু জিডিপিতে বাংলাদেশও পিছনে ফেলতে পারে ভারতকে।

মঙ্গলবারই “ওয়ার্ল্ড ইকনমিক আউটলুক”-এর রিপোর্ট প্রকাশ করেছে আইএমএফ। তাদের পূর্বাভাস অনুযায়ী ২০২০-২১ অর্থবর্ষে দেশের জিডিপি সঙ্কোচন হবে ১০.৩ শতাংশ। সেই নিরিখেই বাংলাদেশের নীচে চলে যাবে বিশ্বের বৃহত্তম গণতন্ত্রের মাথাপিছু জাতীয় উৎপাদন। বিশ্বের প্রথম সারির দেশগুলির তুলনায় সবথেকে বেশি সঙ্কুচিত হবে ভারতীয় অর্থনীতি।

গত জুন মাসে ভারতের অর্থনীতি নিয়ে পূর্বাভাস শুনিয়েছিল আইএমএফ। সেখানে তারা বলেছিল, চলতি অর্থবর্ষে দেশের জিডিপি সঙ্কোচন হবে ৪.৫ শতাংশ। কিন্তু এবার সেই পূর্বাভাস সংশোধন করে আইএমএফ জানিয়েছে, ২০২০ অর্থবর্ষে ভারতের মাথাপিছু জিডিপি কমে হবে ১ হাজার ৮৭৭ ডলার। ১ হাজার ৮৮৮ ডলারে দাঁড়াতে পারে বাংলাদেশের মাথাপিছু জাতীয় উৎপাদন।

উল্লেখ্য, একটি দেশে মোট কত মূল্যের পণ্য ও পরিষেবা উৎপাদিত হয়, তাকে সেই দেশের জনসংখ্যা দিয়ে ভাগ করলে সংশ্লিষ্ট দেশের মাথাপিছু জিডিপি পাওয়া যায়।
তবে আশার কথাও শুনিয়েছে আইএমএফ। তাদের মতে, ২০২১-২২ অর্থবর্ষে ঘুরে দাঁড়াতে পারে ভারতের অর্থনীতি। তখন জিডিপি ৮.৮ শতাংশ বৃদ্ধি হতে পারে।

আইএমএফের এই রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসার পরেই মোদি সরকারকে একহাত নিয়েছেন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী। ট্যুইটারে তিনি লিখেছেন, “বিজেপির ছয় বছরের বিদ্বেষপূর্ণ সংস্কৃতি ও জাতীয়তাবাদের এটাই ফল। ভারতকে পিছনে ফেলতে চলেছে বাংলাদেশ। অর্থনীতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ শানিয়েছে পশ্চিমবঙ্গের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসও। ট্যুইটারে তারা লিখেছে, নরেন্দ্র মোদির ভুল সিদ্ধান্তের জন্য ভারতের অর্থনীতি আজ তলানিতে। একদিকে জিডিপি কমছে এবং অন্যদিকে বেকারত্ব বাড়ছে। পরিস্থিতি যা, তাতে আর্থিক বৃদ্ধির নিরিখে দক্ষিণ এশিয়ার অন্যান্য দেশের নীচে চলে যাবে ভারত।

 

সিটিজিক্যাম্পাস/১০/২০২০

মন্তব্য দিন ...

শেয়ার করুনঃ
মিস করলে পড়ে নিন ...