1. ctg.soft.it@gmail.com : সিটিজি ক্যাম্পাস ডটকম : সিটিজি ক্যাম্পাস ডটকম
  2. jaidmtarik@gmail.com : @dmin2014 :
  3. nakhokan12@gmail.com : @khokan :
  4. ctg.soft.it@gmail.com : সিটিজি ক্যাম্পাস ডটকম : সিটিজি ক্যাম্পাস ডটকম
  5. aktar.asia@gmail.com : Ctgcampus.com : Ctgcampus.com
  6. ltasif48@gmail.com : আসিফুল ইসলাম : আসিফুল ইসলাম
  7. emteeaz2017@gmail.com : ইমতিয়াজ : ইমতিয়াজ সিটিজি ক্যাম্পাস ডটকম
  8. ahamedfarhad0123@gmail.com : ফরহাদ হোসাইন : ফরহাদ মাহমুদ
  9. Irfanulibrahim@gmail.com : irfan2020 :
  10. editor.ctgcampus@gmail.com : jaid :
  11. swo.ctg15@gmail.com : Ainan Mamun : Ainan Mamun
  12. munjir.saad@hotmail.com : সিটিজি ক্যাম্পাস নিউজ : মুনযির এম সাদ সিটিজি ক্যাম্পাস নিউজ
  13. abontu.ru95@gmail.com : আবু বক্কর অন্তু : আবু বক্কর অন্তু Ctgcampus
  14. rafiebc0@gmail.com : আরফাত হোছাইন রাফি : CtgCampus আরফাত হোছাইন রাফি
  15. rakibloh007@gmail.com : রাকিবুল হাসান : রাকিবুল হাসান
  16. Hasanlaw93.ru@gmail.com : sakib : sakib
শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০, ০২:৪৫ পূর্বাহ্ন
করোনা আপডেটঃ
অনলাইন শিক্ষা নিশ্চিতে শিক্ষার্থীদের জন্য সব করা হবে: জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য করোনা কখন বিদায় হচ্ছে? চবিতে কোভিড-১৯ প্রাইমারী সাপোর্ট সেন্টার স্থাপনের কাজ শুরু করোনা আপডেট: চট্টগ্রামে আক্রান্ত ১৭৮, মৃত্যু ৪ লকডাউনে কাট্টলীতে ঘোরাঘুরি, গুণতে হলো জরিমানা কোভিড-১৯ সনাক্তকরণে চবি পরিবারের সদস্যবৃন্দ স্যাম্পল দিতে পারবে কুলগাঁও সিটি কর্পোরেশন কলেজে স্থাপিত বুথে চট্টগ্রামে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট আইসোলশন সেন্টার উদ্বোধন আজ করোনা’র সংক্ষিপ্ত পর্যবেক্ষণ চবি’র একাডেমিক কার্যক্রম ও করোনা পরিস্থিতি নিয়ে উপাচার্যের সাথে ডিনবৃন্দের সভা অনুষ্ঠিত ৬ জুন/ করোনা রোগী মিললো চট্টগ্রামের যেসব এলাকায়

সার্স কভ-২ এবং বহুরূপী স্পাইক প্রোটিন – চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি ছোট্ট গবেষনা প্রবন্ধ

  • প্রকাশের সময়ঃ শনিবার, ৬ জুন, ২০২০

আমরা ভাইরোলজিস্ট বা মাইক্রোবায়োলজিস্ট নই। তাই আমরা কেউ সার্স কভ-২ বিশেষজ্ঞও নই। বরং জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ার বা বায়োটেকনোলজিস্ট হিসেবে আমাদের আগ্রহের জায়গা এর জিন, জিনোম ও প্রোটিন। সেই আগ্রহ ও দায়বদ্ধতা থেকে আমরা কাজ করেছিলাম সার্স কভের দেহের সবচেয়ে ভয়ংকর ও বিষক্রিয়া সৃষ্টিকারী প্রোটিন স্পাইক প্রোটিন ও তার জিন নিয়ে। বায়োইনফরমেটিক্স ও কম্পিউটেশনাল বায়োলজির সাহায্য নিয়ে করা এই কাজটি গতকাল ফ্রান্স থেকে প্রকাশিত হয়েছে Elseivier প্রকাশনার Journal of Molecular Epidemiology and Evolutionary Genetics of Infectious Diseases (MEEGID) এর নিবন্ধ Infection, Genetics and Evolution জার্নালে (ইমপ্যাক্ট ফ্যাক্টর ২.৬)। লিঙ্ক- https://www.sciencedirect.com/science/article/pii/S1567134820302203?via%3Dihub

*এপ্রিল এর মঝামাঝি পর্যন্ত আমরা সার্স কভ-২ এর জিনোমে ৪৮৩ রকমের ভিন্নতা দেখেছি যুক্ত্ররাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, চীন, ইটালি, স্পেন, ভারত, নেপাল সহ বিভিন্ন দেশের ভাইরাসে।

*একই সময়ে SARS-CoV-2 S glycoprotein তথা স্পাইক প্রোটিনে ৪০ রকমের ভিন্নতা পর্যবেক্ষিত হয়েছে। এদের মধ্যে ১৪ টির ডিএনএ/ আরএনএ তে অন্য নিউক্লিওটাইড থাকলেও (সিনোনিমাস মিউটেশন) তা প্রোটিন পর্যায়ে কোন পরিবর্তন আনতে সক্ষম নয়, কিন্ত অন্য ২৫ টি সে পরিবর্তন আনতে সক্ষম (নন-সিনোনিমাস)। প্রোটিনে ভিন্নতা আসার কারনেই এই ভাইরাসটি বিভিন্ন জায়গায় ভিন্ন ভিন্ন আচরণ দেখাচ্ছে এবং অনেক ক্ষেত্রে বদলে যাচ্ছে রোগের উপসর্গ (clinical symptoms)।

* উৎপত্তিগত বিশ্লেষনে (phylogenetic analysis) এই গবেষনায় দেখা গেছে, সার্স কভ-২ এর জিনোম এর মত স্পাইক প্রোটিন এর ক্ষেত্রেও খুবই খাছাকাছি রকমের স্পাইক প্রোটিন পাওয়া গেছে বাদুড় (Bat) এর মধ্যে ।

এখন এসব বিশ্লেষন আসলে কি কাজে লাগতে পারে? প্রতিষেধক বা থেরাপি বা টিকা আবিষ্কার নিয়ে যারা কাজ করেন বা ডিজাইনের চেষ্টা করছেন, তাদের কে মাথায় রাখতে হবে স্পাইক প্রোটিনের বহরুপিতার কারনে খুব সহজে এর বিরুদ্ধে প্রতিষেধক নকশা করা যাবেনা বরং অনেক বেশী বিশ্লেষন প্রয়োজন। দ্বিতীয়ত, এই জিন বা প্রোটিনের যে যে অবস্থানে একেক ভাইরাসে একেক রকম ভিন্নতা দেখা যাচ্ছে সেই নির্দিষ্ট অংশগুলোকে পরিহার করে প্রতিষেধক বা টিকা ডিজাইন করতে হবে, না হলে এই প্রতিষেধক কারো ক্ষেত্রে কাজ করবে, কারো ক্ষেত্রে করবে না। তবে অবশ্যই এই গবেষনার প্রাপ্ত ফলাফলগুলোর ভিত্তিতে কোন কাজ করার আগে লাবরেটরিতে গভীরভাবে সার্স কভ-২ ভাইরাসের চারিত্রিক বিশ্লেষন প্রয়োজন।

এই কাজটি একটি বিশ্লেষণী কাজ, কোন আবিষ্কার বা উদ্ভাবন নয়। তবে আমি কয়েকজন সুপার জিনিয়াসের সাথে কাজ করে খুব উপভোগ করেছি গবেষনার আনন্দ। কোয়ারান্টাইন যে কারো কারো জন্য আশীর্বাদ ছিল আমার সহকর্মী Mahbub Hasan তার প্রমান। লন্ডন থেকে দেশে এসে ১৪ দিনের এই সময়টাতে সে পরিবার থেকে দূরে গ্রামে বসে দিন রাত এই কাজটাতে নিজেকে উৎসর্গ করে ছিল। এই কাজের শুরুতেই উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন সার্ভার দিয়ে পাশে দাঁড়ালেন বরাবরের মত CVASU এর নিবেদিতপ্রাণ গবেষক ও বিজ্ঞানী অধ্যাপক Zonaed Siddiki । এই কাজের জন্য মাসখানেক আমার তুখোড় মেধাবী ছাত্রদের নির্ঘুম রাত কাটানো নিয়েও তাদের ছিলনা কোন অনুযোগ। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বারবার জিজ্ঞেস করা হচ্ছিল কাজ কতদুর? আমরা কি পেয়েছি গবেষণায়? কারো সাহায্য লাগবে কিনা? ভালো লাগছিল এটা ভেবে যে গবেষনা করা হয় আগামীদিন কে বসবাসযোগ্য করার জন্য – এই কোভিড সংকট আমাদের তা বুঝিয়ে দিল

Adnan Mannan
M.Sc (UK), Ph.D. (Australia)
Associate Professor
Dept. of Genetic Engineering & Biotechnology
University of Chittagong

মন্তব্য দিন ...
মিস করলে পড়ে নিন ...


© সকল স্বত্ত্ব  সংরক্ষিত © ২০১৪-২০ সিটিজি ক্যাম্পাস ডটকম

Powered By : Cynor Technology