1. abontu.ru95@gmail.com : abontu :
  2. adanbobadilla@bcd.geomenon.com : adanc1962547 :
  3. aktar.asia@gmail.com : aktar :
  4. jaidmtarik@gmail.com : campus22 :
  5. emteeaz2017@gmail.com : emteeaz :
  6. ahamedfarhad0123@gmail.com : farhad :
  7. admin@ctgcampus.com : jaid :
  8. mdmasum4882@gmail.com : masum :
  9. rafiebc0@gmail.com : rafi21 :
  10. rashedulislam.nubd@gmail.com : rashed21 :
  11. mdsadikaziz64@gmail.com : sadikaziz :
শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:১০ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিংঃ
বেসরকারি ছাত্র-ছাত্রীর শিক্ষাজীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলা বন্ধ করুন। রাত পোহালেই বদরখালী সমিতির নির্বাচন, ভোটের মাঠে উড়ছে টাকা এসএসসির প্রশ্নফাঁস নিয়ে মামলায় যা বলা হয়েছে পছন্দের সাবজেক্টে চান্স পেলেন ৫৫ বছর বয়সী বেলায়েত ১১ সেপ্টেম্বর আইআইউসির ৫ম সমাবর্তন অনুষ্ঠান স্পিড ব্রেকার ও ফুটওভার ব্রিজের দাবিতে ইউএসটিসি শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন খুলশীতে বাইক দূর্ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী  সহ ২জন গুরুতর আহত  এসএসসি পরীক্ষার সময় পেছালো এক ঘন্টা, শুরু হবে বেলা ১১টায় এশিয়া কাপঃ ভারতকে হারিয়ে পাকিস্তান নিল প্রতিশোধ চট্টগ্রামে মাইক্রোবাসের ধাক্কায় চবি শিক্ষকের মৃত্যু

ঢাকা মেডিকেল ইন্টার্ণ ডাক্তার’কে ঢাবিতে মারধরের অভিযোগ

  • সময় সোমবার, ৮ আগস্ট, ২০২২

ঢাকা মেডিকেল ইন্টার্ণ ডাক্তার’কে ঢাবিতে মারধরের অভিযোগ করেন, ডা: সাজ্জাদ হোসেন। তাহার ফেসবুকে বিষয়টি বিস্তারিত বর্ণনা করেন:

৯ঃ৩০ এর ঘটনা। সন্ধ্যা ৭টায় রীডিং রুমে পড়তে আসছি।৯টার দিকে ভাবলাম একটু ঘুরে আসি। শহীদ মিনারে গেলাম। মূল বেদীর পাশে নিচে বসে বাদাম খাচ্ছিলাম।

কয়েকটা ছেলে এসে বললো ভাই পরিচয় কি? বললাম আমি ঢাকা মেডিকেলের। এরপর আইডি কার্ড চাইল। বললাম সাথে ব্যাগ নাই।আইডি কার্ড তো সবসময় সবাই সাথে নিয়ে ঘুরি না। এই কথা বলার সাথে সাথে চড়ানো থাপড়ানো শুরু করলো। আমি অবাক হয়ে বললাম ভাই কি করলাম আমি।

এই কথা বলার পরে শুরু হইল দ্বিতীয় দফায় মাইর। এরপর আরো ৪-৫ জন আসলো। আমার নাকি এটিচুড প্রবলেম হেন তেন।

এইটা ঢাবির ক্যাম্পাস, আমি এইখানে কি করি। বলে যতক্ষন পারলো মাইর চললো। কানে মারার পরে মাথা ঘুরানো শুরু করলো।।আমি বসে পরলাম,এরপর মাথায় লাথি মারা হইল।।আমি কেন এখনো যাই না এখান থেকে এইটা বলে চিল্লাইতে চিল্লাইতে ইচ্ছামত মারা হইল।
এক কানে কম শুনতেসি এরপর থেকে,নাক থেকে রক্ত বের হচ্ছে।মাড়িও কেটে গেছে দাঁতের। কোনমতে রিক্সা নিয়ে হলে ফিরলাম।

ইন্টার্নশীপে জয়েন করার পর থেকে ঢাবির অনেক স্টুডেন্টই হাসপাতলে আসতে দেখসি। যতটুকু পারি আলাদাভাবে হেল্প করার চেষ্টা করসি। স্যারদের কাছেও রোগীর কোন দরকারে গেলে বলছি স্যার রোগী ঢাবির স্টুডেন্ট। আজকে সবকিছুর প্রতিদান পাইলাম।

পুরা জীবদ্দশায় কারো সাথে মারামারি করসি বলে মনে পরে না। আমি হলে আছি আজকে ৬ বছর ধরে।যারা চিনেন তারা জানেন কতটুকু নম্রতার সাথে চলতে চেষ্টা করি।আজকে নতুন অভিজ্ঞতা পাইলাম।

যেই শহীদ মিনার প্রথম বানানো হইসিল ঢামেকের হলে,ঢামেকের স্টুডেন্টদের দ্বারা। সেই শহীদ মিনারে ঢামেকের পরিচয় দেওয়ার পরেও এইভাবে মাইর খাওয়া লাগল।

কি চমৎকার দেশে বাস করি এইটাই ভাবতেছি। যখন তখন যে যারে পারতেছে এতগুলা মানুষের সামনে মারতেসে। মানুষও মজা দেখতেসে। আহা কি সুন্দর!

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো ...

লিখুন এখানে

© All rights reserved © 2014 -22 Ctgcampus.com

Powered By Cynor Technology