1. abontu.ru95@gmail.com : abontu :
  2. adanbobadilla@bcd.geomenon.com : adanc1962547 :
  3. aktar.asia@gmail.com : aktar :
  4. jaidmtarik@gmail.com : campus22 :
  5. emteeaz2017@gmail.com : emteeaz :
  6. ahamedfarhad0123@gmail.com : farhad :
  7. admin@ctgcampus.com : jaid :
  8. mdmasum4882@gmail.com : masum :
  9. rafiebc0@gmail.com : rafi21 :
  10. rashedulislam.nubd@gmail.com : rashed21 :
  11. mdsadikaziz64@gmail.com : sadikaziz :
রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৫:৫৯ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিংঃ
বেসরকারি ছাত্র-ছাত্রীর শিক্ষাজীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলা বন্ধ করুন। রাত পোহালেই বদরখালী সমিতির নির্বাচন, ভোটের মাঠে উড়ছে টাকা এসএসসির প্রশ্নফাঁস নিয়ে মামলায় যা বলা হয়েছে পছন্দের সাবজেক্টে চান্স পেলেন ৫৫ বছর বয়সী বেলায়েত ১১ সেপ্টেম্বর আইআইউসির ৫ম সমাবর্তন অনুষ্ঠান স্পিড ব্রেকার ও ফুটওভার ব্রিজের দাবিতে ইউএসটিসি শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন খুলশীতে বাইক দূর্ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী  সহ ২জন গুরুতর আহত  এসএসসি পরীক্ষার সময় পেছালো এক ঘন্টা, শুরু হবে বেলা ১১টায় এশিয়া কাপঃ ভারতকে হারিয়ে পাকিস্তান নিল প্রতিশোধ চট্টগ্রামে মাইক্রোবাসের ধাক্কায় চবি শিক্ষকের মৃত্যু

লোহাগাড়ায় প্রতারক আনোয়ার মিসবাহ গ্রেফতার

  • সময় বুধবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২১

তরুণ উদ্যোক্তারদের সমন্বয়ে গড়া সামানস গ্রুপের কথিত এমডি আনোয়ার হোসাইন মিসবাহ। এই পদবি ব্যবহার করে বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষকে দোকান বরাদ্দ দেয়ার নাম করে হাতিয়ে নিয়েছের কোটি কোটি টাকা। আর এসব অভিযোগে কয়েকটি মামলা হয়েছে তার বিরুদ্ধে। এরমধ্যে কয়েকটি মামলায় তাকে অপরাধী ঘোষণা করে কয়েক বছরের সাজা দিয়েছে আদালত। পাশাপাশি আরো কয়েকটি মামলায় তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে আদালত।

জানা যায়, আর এসব সাজা ও গ্রেপ্তারি পরোয়ানা মাথা নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছিল এই দুর্ধর্ষ প্রতারক। তবে এবার শেষ রক্ষা হয়নি তার। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত রবিবার রাতে লোহাগাড়ার চুনতি এলাকায় অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। আর সফল এ অভিযানে নেতৃত্ব দেন লোহাগাড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ওবায়দুল ইসলামের নেতৃত্বাধীন পুলিশের একটি টিম।

এদিকে, দোকান বরাদ্দ দেওয়ার নামে মানুষের কাছ থেকে সাড়ে তিন কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে গ্রুপের পরিচালকদের পক্ষে সিএমএম আদালতে মামলা দায়ের করেন পরিচালক সাইফুর রহমান। যা তদন্ত করছে অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

একাধিক ভুক্তভোগী জানান, আনোয়ার একজন পেশাদার প্রতারক। তিনি এমডি পরিচয়ে নগরীর রাহত্তারপুল ও কক্সবাজারের চকরিয়া-পেকুয়ায় সামান্স গ্রুপের নির্মিত মার্কেটে দোকান বরাদ্দ ও গ্রুপের মালিকানা দেয়ার নামে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। যদিও তারা কোন দোকান বুঝে পাননি। এমনকি কোনো একটি দোকান চার-পাঁচজনকে বিক্রি করেছে প্রতারক আনোয়ার।

এছাড়া তার কাছে ৩৩ লাখ ৭৯ হাজার ৩৮২ টাকা পাওনা রয়েছেন বলে জানিয়েছেন গ্রুপের অন্যতম পরিচালক সাইফুর রহমান। তিনি বলেন, আমরা আমাদের জীবনের অর্জিত সকল মূলধন এই গ্রুপে বিনিয়োগ করেছিলেন। শুধুমাত্র একটা ভাল কিছুর আশায়। কিন্তু এই মহাপ্রতারকের প্রতারণায় আজ আমরা নিঃস্ব। সবহারিয়ে আজ আমরা দিশেহারা।

 

সুত্রঃ যুগান্তর

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো ...

লিখুন এখানে

© All rights reserved © 2014 -22 Ctgcampus.com

Powered By Cynor Technology